আওয়ামী লীগকে কেউ ভোটে হারাতে পারবে না: জয়

0
14
সজীব ওয়াজেদ জয়— ফাইল ছবি

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকে কেউ ভোটে হারাতে পারবে না বলে মনে করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। দেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে শনিবার বিকেলে রাজধানীর হোটেল র‌্যাডিসনে সুচিন্তা ফাউন্ডেশন আয়োজিত এক সেমিনারে তিনি এ অভিমত ব্যক্ত করেন।

সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, ‘আমি জরিপ করেছি। আওয়ামী লীগকে কেউ ভোটে হারাতে পারবে না। সুশীল বাবুদের কথায় আমাদের কিছু যায় আসে না। আমরা পরোয়া করি না।’

নির্বাচন নিয়ে সুশীল সমাজ আওয়ামী লীগকে ‘ভয়’ দেখাতে চায়— এমন অভিযোগ করে প্রধানমন্ত্রীর ছেলে জয় বলেন, ‘যারা একটি ভোট পায় না, তাদের আমরা ভয় পাই না। আওয়ামী লীগ ভোটের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসেছে, বন্দুকের নল দিয়ে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসে নাই। বিএনপি-সুশীল-জামায়াত এক হয়েও আওয়ামী লীগকে ভোটে হারাতে পারবে না। তাই আমাদের কোনো ভয় নেই। আওয়ামী লীগ কখনোই ভয় পায় না।’

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘একুশে আগস্টের সেই নারকীয় হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যের নায়ক তারেক রহমানকে বিদেশে পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে করে দিয়েছিলেন এই মইনুল হোসেনদের মত ষড়যন্ত্রকারীরা। আর আজ তারাই বিএনপির সাথে জোট বেঁধে ক্ষমতায় যাওয়ার পথ খুঁজছেন। ভাবতে অবাক লাগে আমার।’

জয় বলেন, ‘বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মীকে হত্যা করেছে। একুশে আগস্টে গ্রেনেড হামলায় তারা ২৪ জনকে হত্যা ও তিনশ’র মত নেতাকর্মীকে আহত করেছে। বিএনপি যদি ১০ বছর ক্ষমতায় থাকতো তাহলে তারা পুরো আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য করে ফেলতো। যারা একুশে আগস্টের সাথে জড়িত তাদের কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।’

তিনি বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্ট নিরপেক্ষতার কথা বলছে। তারা আসলে নিরপেক্ষতা বলেতে কী বোঝাতে চেয়েছেন? আজ আমাদের সুশীলবাবুরা বলেন, বাংলাদেশকে রক্ষা করতে হবে। এর মানে এই দাড়ালো— তারা সেই দুর্বৃত্ত দলটির কথাই বলছেন।’

বাংলাদেশর জনগণ আজ সুখে-শান্তিতে বসবাস করছে দাবি করে জয় বলেন, ‘দেশের জনগণ সুখে-শান্তিতে বাস করুক সেটা তারা চায় না। আর এ জন্য সেই সন্ত্রাসবাদ, জঙ্গিদের আশ্রয় দিচ্ছে এই ঐক্যফ্রন্ট। তারা বিএনপিকে পুনর্গঠন করছে। তারা বিএনপিকে বাঁচানোর চেষ্টায় রয়েছে।’

একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে এসে সাজা দেওয়া হবে জানিয়ে জয় বলেন, ‘তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে এনে সাজা দেব। যারা মানুষ পুড়িয়েছে, জঙ্গিদের আশ্রয় দিয়েছে, মানুষ হত্যা করেছে, তাদের কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। তাদের বিরুদ্ধে আমরা কঠোর আইনি ব্যবস্থা নিতে থাকবো।’

সুশীলদের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘আপনারা কী মনে করেন? আওয়ামী লীগের বিরোধিতা করে দেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা থামিয়ে দিতে চান? আপনারা কি সন্ত্রাসবাদী দল বিএনপিকে ক্ষমতায় দেখতে চান? আমরা কি কখনো খুনি তারেক রহমানকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই? না তা, কখনো হতে দেওয়া যাবে না।’
// সুত্রঃ সমকাল//

Leave a Reply