আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়া নতুন মুখ অন্তত ৪৬ জন!

0
25

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে অন্তত ৪৬ জন নতুন মুখ। তাঁদের মধ্যে আছেন সাবেক সচিব, সাবেক আইজিপি, প্রধানমন্ত্রীর এপিএস, জাতীয় দলের ক্রিকেটার ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা। নতুন মুখের তালিকায় আছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) ভাগনেও।

গতকাল আওয়ামী লীগ ২৩০টি আসনে যাঁদের দলীয় মনোনয়নের চিঠি দিয়েছে, তাঁদের মধ্যে ফরিদপুর-১ আসনে নতুন মুখ হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছেন রূপালী ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও সাবেক সচিব মনজুর হোসেন। এই আসনের বর্তমান সাংসদ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান বাদ পড়েছেন।

কিশোরগঞ্জ-২ আসনে প্রথমবারের মতো মনোনয়ন পেলেন পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজিপি) নূর মোহাম্মদ। সিলেট-১ আসনে মনোনয়ন পেলেন বর্তমান সাংসদ ও অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের ভাই জাতিসংঘে বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি এ কে আবদুল মোমেন।

চাঁদপুর-১ আসনে বর্তমান সাংসদ সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহীউদ্দীন খান আলমগীর। এই আসনে মহীউদ্দীন খান আলমগীরের পাশাপাশি নতুন মুখ জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম হোসেনের নামও রয়েছে। পরে যেকোনো একজনকে বাদ দেওয়া হবে।

পটুয়াখালী-৩ আসনের এস এম শাহজাদা। তিনি বর্তমান সিইসি কে এম নুরুল হুদার ভাগনে। এই আসনের বর্তমান সাংসদ সাবেক প্রতিমন্ত্রী আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন বাদ পড়ছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহকারী একান্ত সচিব (এপিএস-২) এবং ছাত্রলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সাইফুজ্জামান (শিখর) মাগুরা-১ আসনে প্রথমবারের মতো মনোনয়ন পেলেন।

নতুন মুখ হিসেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা নড়াইল-২ আসন থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন। এই আসনের সাংসদ ওয়ার্কার্স পাটির শেখ হাফিজুর রহমান বাদ পড়ছেন।

নতুন মুখ চাচা-ভাতিজা

বাগেরহাট-১ আসনের বর্তমান সাংসদ শেখ হেলাল উদ্দীন এবারও​ এখানে আওয়ামী লীগের প্রার্থী। তাঁর ছেলে শেখ সারহান নাসের (তন্ময়) বাগেরহাট-২ আসনে প্রথমবারের মতো মনোনয়ন পেয়েছেন। খুলনা-২ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন শেখ হেলালের ভাই শেখ সালাহউদ্দিন (জুয়েল)। এই আসনের সাংসদ ও খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ মিজানুর রহমান বাদ পড়লেন।

নেতাদের মধ্যে নতুন যাঁরা

আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অসীম কুমার উকিল প্রথমবারের মতো নেত্রকোনা-৩ আসনে মনোনয়ন পেলেন।

ক্ষমতাসীন দলের কেন্দ্রীয় দুই সাংগঠনিক সম্পাদক বাদ পড়েছেন, অন্য দুজন প্রথমবারের মতো মনোনয়ন পেয়েছেন। এর মধ্যে এ কে এম এনামুল হক (শামীম) শরীয়তপুর-২ ও প্রয়াত মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর ছেলে মহিবুল হাসান চৌধুরী (নওফেল) চট্টগ্রাম-৯ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন।

শরীয়তপুর-১ আসনের বর্তমান সাংসদ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হকের পরিবর্তে নতুন মুখ হিসেবে এসেছেন আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ইকবাল হোসেন (অপু)। পার্শ্ববর্তী জেলা মাদারীপুর-৩ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান (গোলাপ)। এ আসনের বর্তমান সাংসদ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিমকে মনোনয়ন দেওয়া হয়নি।

পিরোজপুর-১ আসনের নতুন মুখ শ ম রেজাউল করিম। টাঙ্গাইল-৩ আসনে মনোনয়ন পাওয়া আতাউর রহমান খান খুনের মামলায় কারাবন্দী সাংসদ আমানুর রহমান খান রানার বাবা।

ঢাকা-১৩ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন ঢাকা মহানগর (উত্তর) আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান। এখানকার বর্তমান সাংসদ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক বাদ পড়েছেন।

ঢাকা-১ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার বেসরকারি খাত-বিষয়ক উপদেষ্টা ব্যবসায়ী সালমান এফ রহমান। এই আসনের বর্তমান সাংসদ জাতীয় পার্টির সালমা ইসলাম। কুমিল্লা-২ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন বাংলাদেশ উইমেন চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি সেলিমা আহমাদ। টাঙ্গাইল-৮ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জোয়াহেরুল ইসলাম।

আছেন সাবেক সচিব ও আইজিপি ক্রিকেটার, সিইসির ভাগনে

নওগাঁ-৫ আসনে নিজাম উদ্দিন জলিল মনোনয়ন পেয়েছেন। তিনি আওয়ামী লীগের প্রয়াত সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিলের ছেলে।

নেত্রকোনা-২ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আলী খান। এই আসনের বর্তমান সাংসদ যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয় মনোনয়ন পাননি। নেত্রকোনা-১ আসনে নতুন মুখ জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মানু মজুমদার। তিনি বর্তমান সাংসদ ছবি বিশ্বাসের ভগ্নিপতি।

কিশোরগঞ্জ-১ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। তিনি অসুস্থ থাকায় এই আসনে বিকল্প হিসেবে রাখা হয়েছে কৃষিবিদ মশিউর রহমান হুমায়ুনকে।

গাজীপুর-৩ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন। এই আসনের বর্তমান সাংসদ প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা মো. রহমত আলী বাদ পড়েছেন।

জামালপুর-৪ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন চি​কিৎ​সক মুরাদ হাসান। এখানকার বর্তমান সাংসদ জাতীয় পার্টির মোহা. মামুনুর রশিদ। জামালপুর-৫ আসনে নতুন মুখ মোজাফফর হোসেন। যদিও এখানে বিকল্প হিসেবে বর্তমান সাংসদ ও সাবেক ভূমিমন্ত্রী রেজাউল করিম হীরাও রয়েছেন।

এ ছাড়া পাবনা-২ আসনে আহমেদ ফিরোজ, খুলনা-৬ আসনে আকতারুজ্জামান বাবু এবং টাঙ্গাইল-৬ আসনে আহসানুল ইসলাম (টিটু) এবার মনোনয়ন পেয়েছেন। আহসানুল ইসলাম ঢাকার সাবেক সাংসদ মকবুল হোসেনের ছেলে।
// সুত্রঃ প্রথম আলো//

Leave a Reply