দায় স্বীকার করে মার্কিন পার্লামেন্টে ক্ষমা প্রার্থনা জুকারবার্গের

0
14

পাঁচ কোটি ব্যবহারকারীর তথ্য চুরির দায় স্বীকার করে মার্কিন পার্লামেন্টে ক্ষমা চেয়েছেন ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী মার্ক জুকারবার্গ। মঙ্গলবার মার্কিন পার্লামেন্টে হাজির হন জুকারবার্গ। সেখানে পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষের ৪৪ জন আইনপ্রণেতা জেরা করেন জুকারবার্গকে। খবর সিএনএনের।

বক্তব্যের শুরুতেই তথ্য কেলেঙ্কারির কথা স্বীকার করে আনুষ্ঠানিভাবে ক্ষমা চান মার্ক জুকারবার্গ। এরপর তিনি বলেন, এটা এখন স্পষ্ট যে ব্যবহারকারীর তথ্য সুরক্ষায় আমরা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হয়েছি। ফলে ভুয়া খবর, নির্বাচনে বিদেশি হস্তক্ষেপ ও তথ্য চুরির মতো ঘটনা ঘটেছে।

মার্ক জুকারবার্গ বলেন, আমরা আমাদের দায়িত্ব সম্পর্কে যথেষ্ট সচেতন ছিলাম না এবং এটা ছিল বড় ভুল। আমি ফেসবুক প্রতিষ্ঠা করেছি এবং এটি আমি পরিচালনা করি। তাই এখানে যা ঘটেছে এবং ভবিষ্যতে যা ঘটবে তার দায় আমার। আমি আবারও দুঃখ প্রকাশ করছি।

তিনি বলেন, “আমরা আমাদের দায়িত্ব সম্পর্কে ব্যাপক দৃষ্টিভঙ্গি নিইনি এবং এটি একটি বড় ভুল ছিল”। “এটি একটি বড় ভুল ছিল এবং আমি দুঃখিত। আমি ফেসবুকে শুরু করেছিলাম। আমি এটি চালাই এবং এখানে কি ঘটবে তার জন্য আমি দায়ী।”

মার্কিন সিনেট জুডিসিয়ারি এবং কর্মাস কমিটি তাকে যৌথভাবে জেরা করেন। প্রায় পাঁচ ঘণ্টার শুনানিতে জুকারবার্গ ফেসবুকের তথ্য সংগ্রহের প্রচেষ্টায় প্রশ্ন তুলেন এবং ইন্টারনেট কোম্পানিকে নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে তার মতামত দেন। সুত্রঃ সমকাল।

Leave a Reply