দেশ জুড়ে স্কুলে নিষিদ্ধ হচ্ছে হিজাব-অস্ট্রিয়া

0
5

ভিয়েনা: দেশের সংস্কৃতির পরিপন্থী হচ্ছে হিজাব। সেই কারণে দেশ জুড়ে হিজাব বন্ধ করতে চাইছে সরকার। এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে অস্ট্রিয়া সরকার। যদিও সংসদে এখনও বিল পাস হয়নি। তবে খুব শীঘ্রই তা হয়ে যাবে বলে স্থির করেছে সরকারপক্ষ।

সমাজের সর্বস্তরের মানুষদের জন্য এই নিয়ম লাঘু করা হচ্ছে না। কেবলমাত্র শিশুশ্রেণী থেকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের জন্য কার্যকর করা হচ্ছে এই আইন।

বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুসারে, হিজাব প্রথা অস্ট্রিয়ার চিরাচরিত সংস্কৃতির পরিপন্থী বলে দাবি অই দেশের দক্ষিণপন্থী প্রশাসনের। চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান ক্রুজ বলেন, “অস্ট্রিয়ায় সমান্তরাল সমাজব্যবস্থার বিকাশকে রোখাই আমাদের লক্ষ্য। শিশুশ্রেণীতে ছাত্রীদের হিজাবে নিষেধাজ্ঞা আমাদের সেই নীতিরই অঙ্গ।” তিনি আরও বলেছেন, “কয়েক দশক আগেও অস্ট্রিয়ার মানুষ হিজাব চিনত না। এখন ইসলামিক স্কুল তো বটেই বিভিন্ন সাধারণ স্কুলেও শিশুরা হিজাব পরে আসছে।”

এপ্রসঙ্গে উল্লেখযোগ্য উদ্বাস্তুদের আশ্রয় দেওয়ার পশ্চিমী নীতির কড়া বিরোধিতা করেই গত বছর নির্বাচনে জিতেছিলেন ক্রুজ। সিরিয়ায় মানবিক সঙ্কটের পর মাত্র ১ শতাংশ উদ্বাস্তুকে আশ্রয় দিয়েছে অস্ট্রিয়া। ইতিমধ্যে ফ্রান্স-সহ ইউরোপের কয়েকটি দেশে প্রকাশ্যে হিজাব পরায় নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

অস্ট্রিয়ার প্রশাসনের বর্তমান নির্দেশিকা অনুসারে, ১০ বছর পর্যন্ত ছাত্রীরা স্কুলে হিজাব পরে যেতে পারবে না। এই নিয়ে আইন তৈরি করতে ইতিমধ্যে উদ্যোগী হয়েছে অস্ট্রিয়ার শিক্ষা মন্ত্রক। স্কুলগুলির কাছে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে তথ্য জানতে চাওয়া হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী হেনিজ ফ্যাসম্যান বলেছেন, “খসরা আইন প্রস্তুত হয়ে গিয়েছে। আসন্ন গ্রীষ্মকালীন অধিবেশনেই সবকিছু চূড়ান্ত হয়ে যাবে।” সুত্রঃ Kolkata24x7

Leave a Reply