নিজেদের বেতন কমানোর দাবিতে কানাডায় ডাক্তারদের গণস্বাক্ষর!

0
25

হ্যাঁ, বেতন কমানোর জন্যই আন্দোলন করছেন কানাডার প্রায় ৮০০ ডাক্তার। তারা এবং ১৫০ জনেরও বেশি ইন্টার্ন ডাক্তার মিলে একটি চিঠিতে গণস্বাক্ষর করেছেন, যেখানে নিজেদের বেতন বৃদ্ধির বিরোধিতা করছেন তারা।

ওই চিঠিতে বলা হয়, ‘আমরা কিউবেক প্রদেশের ডাক্তাররা, যারা একটি শক্তিশালী মানবিক ব্যবস্থায় বিশ্বাস করি, তারা সাম্প্রতিক এই বেতন বৃদ্ধির প্রতিবাদ করছি।’

ডাক্তারদের এই দলটি জানায়, যেখানে রোগী ও নার্সরা কষ্টে আছেন, সেখানে তারা নিজেদের স্বার্থ উন্নয়নের ব্যাপারটিতে আহত হয়েছেন।

২৫ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত এই চিঠিতে আরো বলা হয়, ‘এই বেতন বৃদ্ধি আরো বেশি দুঃখজনক কারণ আমাদের নার্স, ক্লার্ক ও অন্যান্য সহকর্মীরা অনেক কষ্টে কাজ করে থাকেন। আর সম্প্রতি ব্যাপক হারে মজুরি কর্তন এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের ক্ষমতার কেন্দ্রীয়করনের ফলে আমাদের রোগীরা প্রয়োজনীয় সেবা পেতে হিমশিম খাচ্ছেন। এই সংকট নিরসনে আমাদের একমাত্র করণীয় হলো নিজেদের পারিশ্রমিক কমানো।’

কানাডা সরকারের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে যে, কানাডায় একটি জনস্বাস্থ্য ব্যবস্থা রয়েছে যেখানে মানুষের প্রয়োজনের ভিত্তিতে সব ধরনের সেবা প্রদান করা হবে, কারো সাধ্য না থাকলেও তাকে সেই সেবা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

২১৩ জন প্র্যাকটিস ডাক্তার, ১৮৪ জন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার, ১৪৯ জন আবাসিক মেডিকেল ডাক্তার এবং ১৬২ জন মেডিকেল ছাত্র জানিয়েছেন যে, তাদেরকে যে বর্ধিত বেতন দেওয়া হবে তা যেন এই জনস্বাস্থ্য ব্যবস্থার ভান্ডারে জমা করে দেওয়া হয়।

প্রকাশিত চিঠিতে বলা হয়, ‘আমরা বিশ্বাস করি সকল সম্পদকে পুনর্বিতরণের দ্বারা কর্মচারীদেরকে কষ্টে না রেখেই রোগীদেরকে মানসম্মত সেবা দেওয়া সম্ভব। তাই আমরা, কিউবেক-এর ডাক্তারেরা চাই যে, আমাদেরকে অতিরিক্ত অর্থ প্রদান না করে সেই অর্থ যেন স্বাস্থ্য সেবার মান উন্নয়ন, কর্মচারীদের মঙ্গল এবং রোগীদের সুবিধার্থে ব্যয় করা হয়’

কানাডার একজন ফিজিশিয়ানকে গড়ে বছরে ২ লাখ ৬০ হাজার ৯২৪ মার্কিন ডলার প্রদান করে থাকে সরকারের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, কানাডিয়ান ইন্সটিটিউট ফর হেলথ এর রিপোর্ট থেকে এমনটাই জানা গিয়েছে।

২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে প্রকাশিত এক তথ্যতালিকা থেকে জানা যায়, একজন পারিবারিক ফিজিশিয়ান বছরে ২,১১,৭১৭ মার্কিন ডলার এবং একজন সার্জিকাল বিশেষজ্ঞ বছরে ৩,৫৪,৯১৫ ডলার উপার্জন করে থাকেন।

উল্লেখ্য, এটি ডাক্তারদের গড় আয়ের এক তালিকা, অনেকে বিভিন্ন সেবা প্রদানের দ্বারা এর চেয়েও বেশি অর্থ পেয়ে থাকেন।

সুত্রঃ ইত্তেফাক

Leave a Reply