নেপালের সেই ত্রিভুবন বিমানবন্দরে মাহি!

0
2
নেপালে মনে রেখো ছবির শুটিংয়ের ফাঁকে জয়ী, মাহি ও বনি

১২ মার্চ নেপালের ত্রিভুবন বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলার বিমানের মর্মান্তিক দুর্ঘটনার পর নেপালের চিত্র খানিকটা পাল্টে গেছে। নেপালের বিভিন্ন জায়গায় বাংলাদেশের নাটক, গানের ভিডিও ও চলচ্চিত্রের শুটিংয়ের সুবাদে সেখানকার নৈসর্গিক সৌন্দর্য আমাদের সামনে নানা রূপে উঠে এসেছে। কিন্তু দুর্ঘটনার পর ত্রিভুবন বিমানবন্দরটি হয়ে উঠেছে আতঙ্কের এক নাম। সেই আতঙ্ক পাশ কাটিয়েই অভিনেত্রী মাহিয়া মাহি সম্প্রতি নেপালে গেলেন শুটিংয়ে। নামলেন সেই ত্রিভুবন বিমানবন্দরেই। নেপালে মনে রেখো ছবির শুটিংয়ের ফাঁকে জানালেন তাঁর সেই অভিজ্ঞতার কথা।

ত্রিভুবন বিমানবন্দরের দুর্ঘটনায় ইউএস-বাংলার ক্রুসহ ৪৯ জন নিহত হয়েছেন। তার মধ্যে বাংলাদেশি আছেন ২৬ জন। দুর্ঘটনার পর থেকে নেপালে শুটিং কিংবা ভ্রমণের পরিকল্পনা নিয়ে অনেকেই ভাবছেন নতুন করে। ওই নির্দিষ্ট বিমানবন্দর নিয়ে অনেকের মনেই এখন আতঙ্ক। তবে আতঙ্ক থাকলেও সময়মতো কাজ শেষ করার তাগিদ থেকে ১৬ মার্চ শুটিং দল নিয়ে নেপালে যান মাহিয়া মাহি। এখনো আছেন সেখানে।

‘মনে রেখো’ ছবির চারটি গানের শুটিং চলছে নেপালের বিভিন্ন জায়গায়। গত রোববার বিকেলে নেপাল থেকে মাহি মুঠোফোনে জানান তাঁর অভিজ্ঞতার কথা। বলেন, ‘বিমানে তো অসংখ্যবারই চড়েছি, কিন্তু এবার বিমানে ওঠার আগে থেকে একটা ভয় কাজ করছিল মনে।’

ত্রিভুবন বিমানবন্দরেই নামে মাহি ও শুটিংয়ের দল বহনকারী বিমানটি। মাহি বলেন, ‘যখন জানতে পারলাম ত্রিভুবন বিমানবন্দরে আমরা নামছি, তখন ভয় লাগছিল। কোনো দিনই বিমানে বসে আমি নিচে রানওয়ের দিকে খেয়াল রাখিনি। এবারই প্রথম বিমান নামার সময় ভয়ে ভয়ে জানালা দিয়ে নিচের দিকে তাকাচ্ছিলাম।’

মাহির সঙ্গে ‘মনে রেখো’ ছবিতে অভিনয় করছেন ভারতের কলকাতার বনি সেনগুপ্ত। নেপালে তিনিও শুটিংয়ে অংশ নিচ্ছেন। শুটিং চলবে ২২ মার্চ পর্যন্ত। এই দলের সঙ্গে আছেন ভারতীয় নৃত্য পরিচালক আদিল শেখ।

‘মনে রেখো’ ছবিটি নিয়ে পরিচালক ওয়াজেদ আলী সুমন বলেন, ‘গানের কাজ শেষের পথে। বনির সামান্য ডাবিং বাকি আছে। আশা করছি এপ্রিল মাসে ছবিটি সেন্সরের জন্য জমা দিতে পারব।’ সুত্রঃ প্রথম আলো।

Leave a Reply