পচা ডিমে ঘায়েল ইমরানের গোপন প্রেমিকা!

0
20

জুতো খেয়েছেন ইমরান ৷ এবার তাঁর প্রেমিকা তথা ঘনিষ্ঠ বান্ধবী ও নেত্রী খেলেন ডিমের ঘা ৷ বিতর্কিত এই পাক নেত্রী নিজেকে আবার প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের ভাইপোর স্ত্রী বলেও দাবি করেছেন৷ সবমিলে ফের শিরোনামে আয়েশা গুলালি ৷

পাকিস্তানের নেতা মন্ত্রীদের উপর কালি-জুতো ছুঁড়ে হামলা তো চলছিলই এবার ডিম আর টমেটো ছুঁড়ে দেওয়া হল আয়েশা গুলালিকে৷ আর এই হামলা করলেন আয়েশারই দল তেহরিক-এ-ইনসাফের কিছু মহিলা সমর্থক ৷ শুক্রবার রাতে তাঁর হোটেলের সামনে ডিম ও টমেটোর রসে প্রায় ভিজে যান আয়েশা ৷

পাকিস্তানে নেতা নেত্রী মন্ত্রী আমলাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের ভাষা এক অন্য জায়গায় পৌঁছেছে ৷ যাঁরাই যাঁর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করছেন কখনও জুতো ছুঁড়ে প্রতিবাদ করছেন কখনও কালি লেপে কখনও বা ডিম ও টমাটো ছুঁড়ে৷ এই হামলা করা হয়েছে আয়েশার উপর ৷

আয়েশা নিজেও ইমরান খানের পার্টি তেহরিক-এ-ইনসাফেরই নেত্রী ছিলেন৷ তিনি ইমরান খানের বিরুদ্ধে ওঠা অত্যাচার ও দুর্নীতির অভিযোগ তুলতেই শুরু হয়েছিল চাঞ্চল্য ৷

এই কারণেই তাঁর উপর এই ডিম ও টমেটো ছুঁড়ে হামলা করা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে৷ পাক সংবাদ মাধ্যম জানাচ্ছে,বহাওয়ালপুরে একটি অনুষ্ঠানে অংশ নিতে সেখানে পৌঁছেছিলেন আয়েশা৷ হোটেলে পৌঁছনোর পরেই তাঁর উপর এই হামলা হয়৷ আয়েশা বিতর্কিত নেত্রী৷ কারণ তিনিই সরাসরি ইমরান খানের বিরুদ্ধে অশ্লীল এসএমএস পাঠানোর অভিযোগ তুলেছেন৷ তবে জানা যাচ্ছে, ২০১৭ সালেই পাকিস্তান তেহরিক-এ-ইনসাফ ছেড়ে দেন আয়েশা৷ ২০১২ তে আয়েশা ইমরান খানের পার্টিতে নাম লেখান৷ কিন্তু এই পার্টিতে মহিলাদের সম্মান করা হয়না এই অভিযোগে তিনি দল থেকে পদত্যাগ করেন৷

যদিও একটি পরিসংখ্যানে বলা হয়েছে ভারতের থেকেও পাকিস্তান মানসিকভাবে আনন্দিত বা খুশি দেশ সেই পাকিস্তানেই কয়েকদিন ধরেই অখুশি হয়েই মানুষ একে অপরের উপর প্রতিবাদ জানানোর ভাষা হিসেবে কখনও জুতো কখনও কালি আবার কখনও ডিম ও টমাটো বেছে নিচ্ছেন৷ উল্লেখ্য, পাকিস্তানে এই কয়েকদিন আগেই প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের উপর জুতো ছোঁড়েন এক প্রাক্তন ছাত্র৷ এরপর সেই ছাত্র সভা মঞ্চে উঠে নওয়াজ শরিফের বিরুদ্ধে স্লোগানও দেয়৷ তখন ওই ছাত্র নওয়াজ শরিফকে ইসলাম বিরোধীও বলে৷ পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীকে জুতো ছোঁড়ার ঘটনার পর বলা হয় ওই ঘটনার পিছনে জমাত উদ দাওয়ার হাত ছিল৷ ওই ঘটনায় অভিযুক্ত ওই ছাত্র ও তার সঙ্গীকে পুলিশ তাদের হেফাজতে নিয়ে নেয়৷

পুলিশ তরফ থেকে ওই ছাত্রের নাম আব্দুল গফর বলে জানান হয়৷ তার সঙ্গীর নাম সাজিদ বলে জানা গিয়েছে৷ উল্লেখ্য, পাক পাঞ্জাব প্রদেশে কয়েকদিন আগেই এক দলীয় কর্মীদের সম্মেলনে বক্তব্য রাখছিলেন দেশটির বিদেশমন্ত্রী খোয়াজা আসিফ৷ হঠাৎই এক ধর্মীয় চরমপন্থী ব্যক্তি এসে তাঁর মুখে কালি লেপে দেয়৷ অভিযুক্ত ব্যক্তির দাবি ইসলামের সর্বশেষ নবী মুহম্মদ এটিই সত্য৷ কিন্তু আসিফের দল সংবিধানের মাধ্যমে মানুষের সেই বিশ্বাসকে পরিবর্তন করার চেষ্টা করেছে৷ এর ফলে তাঁর বিশ্বাসে আঘাত পৌঁছেছে৷ পার্টির কর্মীরা এই ঘটনার পর অভিযুক্ত ওই ব্যক্তির নামে অভিযোগ দায়ের করেন ও তাঁকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয় ৷

আবার তেহরিক-এ-ইনসাফ পার্টির কর্তা ইমরান খানের মিছিলেও কিং খানকে লক্ষ্য করে জুতো ছোঁড়েন এক ব্যক্তি৷ সেই সময় একটি গাড়ির উপর ছিলেন ইমরান৷ যদিও ছোঁড়া জুতো সরাসরি ইমরান খানের গায়ে লাগেনি৷ ইমরানের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন অলিম খান নামে এক ব্যক্তি৷ জুতো তাঁর গায়ে গিয়ে লাগে৷ এই ঘটনার পরই ইমরান খান তাঁর ভাষণ বন্ধ করে দেন৷ সেইসময় ওখানে উপস্থিত নিরাপত্তারক্ষীরা ওই যুবককে ধরে ফেলে ও পরে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেয় ৷

Leave a Reply