পাকিস্তানের সংগীতশিল্পী আলী জাফরের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ

0
17
মিশা শাফি, মাহিরা খান, মোমিনা মুসতেহসান ও আলী জাফর

পাকিস্তানের বিনোদনজগতে পড়েছে ‘#মিটু’র প্রভাব। সেখানকার সংগীতশিল্পী আলী জাফরের বিরুদ্ধে ১৯ এপ্রিল যৌন হয়রানির অভিযোগ তোলেন পাকিস্তানেরই এক গায়িকা, নাম মিশা শাফি। এরপর থেকে এই ৩৭ বছর বয়সী গায়কের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ‘#মিটু’ ধারায় আসতে থাকে একের পর এক অভিযোগ ও নিন্দা।

ঠিক যেমনটি ঘটেছিল হলিউডের প্রযোজক হার্ভি ওয়াইনস্টিনের বেলায়। তাঁর যৌন হয়রানি কাণ্ডের গুমর ফাঁস হওয়ার পর থেকেই ‘#মিটু’ ধারার প্রচলন হয়।

সবশেষে আলী জাফরের যৌন হয়রানি-কাণ্ডে ধিক্কার জানালেন পাকিস্তানের ‘কোক স্টুডিও’ থেকে জনপ্রিয়তা পাওয়া গায়িকা মোমিনা মুসতেহসান। টুইট করে তিনি জানান, হয়রানির শিকার নারীরা যেমন ‘#মিটু’ বলে সাহস করে এগিয়ে আসছেন, তেমন করে হেনস্তাকারীদের ‘#আইঅ্যামসরি’ বলে নিজেদের কাণ্ডের জন্য দুঃখ প্রকাশ করতে হবে।

১৯ এপ্রিল সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে একটি বিবৃতির মধ্য দিয়ে মিশা অভিযোগ তোলেন আলীর বিরুদ্ধে। তিনি লেখেন, ‘শারীরিকভাবে আমি বেশ কয়েকবার আমার এক সহকর্মীর দ্বারা নির্যাতিত হয়েছি। তিনি হলেন আলী জাফর। এ ঘটনা তখন ঘটেনি, যখন আমি তরুণ ছিলাম; এটা ঘটেছে তখন, যখন আমি শিল্পী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত, দুই সন্তানের মা।’

মিশার এই বিবৃতির পরপরই পাকিস্তানের কয়েকজন নারী আলী জাফরের বিরুদ্ধে হয়রানির অভিযোগ তোলেন। তাঁদের মধ্যে সাংবাদিক থেকে শুরু করে আলীর ভক্তরাও আছেন। অবশ্য এসব অভিযোগ আলী জাফর অস্বীকার করেছেন। নিজের অবস্থান পরিষ্কার করে দিয়েছেন বিবৃতি। কিন্তু এরপরও নিন্দা থেমে নেই। তাঁরই সহকর্মী অভিনেত্রী মাহিরা খান টুইট করেছেন, ‘যাঁরা এই যৌন হয়রানির ব্যাপারে কিছু না বুঝেই খুব সহজভাবে মন্তব্য করছেন, তাঁরা মানসিক বিকারগ্রস্ত। এভাবেই আমরা হয়রানিকারীদের আশকারা দিয়ে যাচ্ছি, হেনস্তাকারীদের সাহস বাড়িয়েই যাচ্ছি।’

তারকাদের বাইরে রূপসজ্জাকার লীনা গনি, সাংবাদিক মাহাম জাভেদ ও ভক্ত হুমনা রাজা সরাসরি হয়রানির অভিযোগ তুলেছেন আলী জাফরের বিরুদ্ধে। আলী পাকিস্তানের পাশাপাশি বলিউডেও বেশ জনপ্রিয়। বলিউডে একাধারে গান ও অভিনয় দিয়ে তিনি নিজের জায়গা গড়েছিলেন। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস ও বলিউড হাঙ্গামা।

সুত্রঃ প্রথম আলো।

Leave a Reply