বদলে দিলো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নাম-আইসিসি!

0
25

২০০৭ সালে চালু করা হয়েছিল আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর। ১৯৭১ সালে ওয়ানডে ক্রিকেটের উদ্ভাবনকে ক্রিকেট ইতিহাসে অন্যতম ঘটনা মনে করা হয়ে থাকে। তবে ২০০৬ সাল থেকে চালু হওয়া সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট যে ক্রিকেট ইতিহাসে এক বৈপ্লবিক পরিবর্তনের সূচনা করে, সেটা অস্বীকার করার উপায় নেই। যার ধারাবাহিকতায়, ২০০৭ সাল থেকে শুরু হয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর।

প্রথম দিকে ২ বছর পরপর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজন করা হলেও (মাঝে দুই আসরের মধ্যে ব্যবধান ছিল ৩ বছর, ২০০৯ সালের পর ২০১২) ২০১৬ সালের পর থেকে ৪ বছর অন্তর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। যার ফলশ্রুতিতে ২০২০ সালে অস্ট্রেলিয়ায় আয়োজন হবে পরবর্তী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর।

২০০৭ সালে সূচনালগ্ন থেকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের অফিসিয়াল নাম ছিল ‘আইসিসি ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টি’। ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা এবার এই টুর্নামেন্টের নতুন নাম করণ করেছে। এখন থেকে এই টুর্নামেন্টটির অফিসিয়াল নাম হবে, ‘আইসিসি টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ (আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ)’।

এরফলে ২০২০ সালে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিতব্য সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটের এই আসরে নারীদের অংশের নাম হবে আইসিসি উইম্যান টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ এবং পুরুষদের আসরের নাম হবে ‘আইসিসি ম্যানস টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ’।

টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটটা যাতে ক্রিকেটের অন্য দুই ফরম্যাট টেস্ট এবং ওয়ানডে থেকে পুরোপুরি স্বতন্ত্র হতে পারে, তার জন্যই এই নতুন নামকরণ। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে আইসিসিই জানিয়েছে এসব তথ্য। নতুন নাম করণের সিদ্ধান্তটা বাস্তবায়ন হবে, ২০১৯ সালের শুরুতে। যাতে করে সংক্ষিপ্ততম সংস্করণটি শুধুমাত্র ক্রিকেটকে বিশ্বময় করে তোলার হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার না হয়, যাতে নিজেই এই ফরম্যাটটি অন্য দুই ফরম্যাটের চেয়ে স্বাতন্ত্র্য অর্জন করতে পারে।

আইসিসি বোর্ড ইতিমধ্যেই অনুমোদন দিয়েছে যে, সংস্থাটির সদস্য দেশগুলোর মধ্যে পরস্পর আয়োজিত টি-টোয়েন্টি ম্যাচগুলো আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচের মর্যাদা পাবে। এর ফলে আইসিসির ১০৪টি দেশের মধ্যে খেলাটির প্রতি আগ্রহ বাড়ার পাশাপাশি তাদের প্রচুর পরিমানে খেলা এবং বিশ্বকাপের পথে আসার একটা দারুণ সুযোগ তৈরি হবে। তবে বিশ্বকাপের জন্য সদস্য দেশগুলোর মধ্যে আঞ্চলিক বাছাই পর্ব অনুষ্ঠিত হবে।
// সুত্রঃ জাগো নিউজ২৪//

Leave a Reply