ভিটামিন ডি’র ঘাটতি হলে শিশুরা খিটখিটে হয়!

0
1

ভিটামিন ডি হাড়ের বৃদ্ধির প্রধান সহায়ক। যেহেতু শিশুদের হাড়ের দ্রুত বৃদ্ধি ঘটে এ কারণে তাদের প্রচুর পুষ্টিকর খাবার খাওয়া প্রয়োজন।

শিশুদের বৃদ্ধির জন্য ভিটামিন ডি অতি প্রয়োজনীয় একটি উপাদান। তবে শুধুমাত্র একটা উপাদান থেকে ভিটামিন ডি’য়ের প্রয়োজনীয় ঘাটতি পূরণ করা যায় না। এ কারণে শিশুদের ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ একাধিক খাবার দেওয়া প্রয়োজন।

সূর্যের আলো ভিটামিন ডি’য়ের দারুন উৎস। যখন শিশুদের শরীরে সূর্যের আলো ছুঁয়ে যায় তখন তাদের শরীরে রাসায়নিক বিক্রিয়ার মাধ্যমে ভিটামিন ডি উৎপন্ন হয়। তবে ভিটামিন ডি’র ঘাটতি পূরণে বিভিন্ন খাবার যেমন-ডিম, দুধ, গরুর কলিজা, পনির ইত্যাদি খাওয়া প্রয়োজন।

শিশুদের শরীরে যদি অল্প পরিমাণে ভিটামিন ডি’র ঘাটতি থাকে তাহলে সেটা খুব বেশি সমস্যা তৈরি করে না। যাদের শরীরে এটির ঘাটতি হয় তারা খুব দ্রুত ক্লান্ত হয়ে যায়,মাথা ঘোরা সমস্যায় ভোগে। এছাড়া তাদের শরীরে নানা ধরনের ব্যথা দেখা দেয়।

শিশুদের শরীরে ভিটামিন ডি’র ঘাটতি হলে প্রায়ই পেশী ক্রাম্প করে। কারণ পেশীর কার্যক্ষমতা বাড়াতে ভিটামিন ডি’ অতি প্রয়োজনীয় একটি উপাদান।

ভিটামিন ডি’র ঘাটতি হলে শিশুর বৃদ্ধি বাঁধাগ্রস্ত হয়। কারণ পেশী কিংবা হাড়ের গঠনে ভিটামিন ডি’র ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

যেসব শিশুর ভিটামিন ডি’র ঘাটতি থাকে তারা অল্পতেই বিরক্ত, খিটখিটে মেজাজের হয়। তাদের মুডের সমস্যা হয়। তখন তারা অন্য শিশুদের সঙ্গেও মিশতে চায় না।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ভিটামিন সি’র পাশাপাশি ডি’রও প্রয়োজন রয়েছে। যদি কোনো শিশু ঘন ঘন সর্দি-কাশিতে আক্রান্ত হয় কিংবা যেকোন ধরনের সংক্রমণে ভোগে তাহলে বুঝতে হবে তার শরীরে ভিটামিন ডি’র ঘাটতি রয়েছে।

ভিটামিন ডি’র ঘাটতি হলে শিশুদের দাঁতের সমস্যা হয়। অনেকে আবার শ্বাস কষ্টেও ভোগে।

সূত্র : হেলথিবিল্ডার্স / সমকাল।

Leave a Reply