‘স্যান্ডপেপার গেট’ কাণ্ডে মুখ খুললেন স্মিথ!

0
2

বল বিকৃতি ইস্যুতে প্রথমবার মুখ খুললেন নির্বাসিত অজি অধিনায়ক৷ক্যাপ্টেন হিসেবে সমস্ত দায় নিজের কাঁধে নিয়ে ক্রিকেটবিশ্বের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিলেন স্টিভ স্মিথ৷বৃহস্পতিবার দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দেশে ফিরেই সিডনি বিমানবন্দরেই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন সদ্য প্রাক্তন অজি অধিনায়ক ৷

আবার দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার আশা নিয়ে স্মিথ বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার নেতা হিসেব সমস্ত দায় আমি নিজের কাঁধে নিচ্ছি৷অন্য কারোর উপর দোষ চাপাতে চাই না৷আমি বড় ভুল করেছি৷এটা আমার জীবনে সবচেয়ে বড় ভুল৷এর জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী৷আশা করি আমাকে একদিন ক্ষমা করে দেওয়া হবে৷তবে এর জন্য সারা জীবন আমার অনুতাপ হবে৷যদিও ঘটনার ভালো দিক হল, আশা করি এখান থেকে অন্যরা শিক্ষা নেবে৷দেশকে নেতৃত্ব দেওয়াটা গর্বের৷আশা করি আবার দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ পাব৷’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে কেঁদে ফেলেন ‘স্যান্ডপেসার গেট’ কাণ্ডের নায়ক৷দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চেয়ে চোখে জল নিয়ে সাংবাদিক বৈঠক ছাড়তে বাধ্য হন স্মিথ৷এদিনই দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের মাঝপথে দেশে ফিরে আসেন বল বিকৃতি কাণ্ডে তিন মাথা স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার এবং ক্যামেরন ব্যানক্রফট৷বুধবারই এই তিন ক্রিকেটারকে নির্বাসিত করেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া৷

স্মিথ এবং ওয়ার্নারকে একবছরের জন্য সবধরনের ক্রিকেট থেকে নির্বাসনে পাঠায় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া৷কেপ টাউন টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে চলতি সিরিজের তৃতীয় টেস্টে বল বিকৃতির ঘটনা টিভি ক্যামেরাতে ধরা পড়ে৷স্মিথ ও ওয়ার্নার ছাড়াও ওপেনার ব্যানক্রফটকে ৯ মাসের জন্য নির্বাসন দিয়েছে অজি ক্রিকেট বোর্ড৷আগেই অজি-প্রোটিয়া চতুর্থ টেস্ট থেকে তিনজনকে বরখাস্ত করেছিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া৷

নির্বাসন কাটিয়ে ফিরলেও দেশের জার্সিতে মাঠে ফিরলেও আগামী দু’ বছর দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার অধিকার কেড়ে নেওয়া হয় দুই ‘প্রতারক’ অজি ক্রিকেটারের কাছ থেকে৷ বুধবার প্রেস বিবৃতিতে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার তরফে এমনটা ঘোষণা করা হয়৷যদিও তিন খেলোয়াড়ই শাস্তির বিরুদ্ধে আবেদন করত পারবেন৷কিন্তু স্মিথরা আবদেন করতে পারবেন নির্বাসিত সময়ের মধ্যে৷স্বাধীন কমিশনারের নেতৃত্ব ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার আচরণবিধি মেনেই শুনানি হবে৷

দেশের নির্বাসনের পরই আইপিএল থেকেও ছেঁটে ফেলা হল তিন অজি ক্রিকেটারকে৷বুধবারই ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণার পরই আইপিএল চেয়ারম্যান রাজীব শুক্লা জানিয়েছিলেন, ‘ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার যে তিন ক্রিকেটারকে নির্বাসিত করেছে, আইপিএলেও তাদের জন্য কোনও জায়গা নেই৷ প্রথমে আমরা আইসিসির সিদ্ধান্ত এবং পরে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করছিলাম৷ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার এই ঘোষণার পরই আমরা ওদের নির্বাসন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিই৷’

বল বিকৃতির ঘটনার প্রকাশে আসার পরই স্মিথকে নেতৃত্ব সরিয়ে দিয়েছিল রাজস্থান রয়্যালস৷স্মিথকে সরিয়ে অজিঙ্ক রাহানের হাতে নেতৃত্বের ব্যাটন তুলে দেয় দু’বছরের নির্বাসন কাটিয়ে আইপিএলে ফেরা রাজস্থান ফ্র্যাঞ্চাইজি৷আর বুধবার ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার নির্বাসনের ঠিক আগে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের নেতৃত্ব সরে দাঁড়ান ওয়ার্নার৷কিন্তু নেতৃত্ব হারানোই নয়, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার নির্বাসন ঘোষণার পরই দুই ‘প্রতারক’ অজি ক্রিকেটার স্মিথ ও ওয়ার্নারকে আইপিএল থেকে ছেঁটে ফেলার সিদ্ধান্ত নেয় আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল ৷

Leave a Reply